প্রতিবেদন

বাংলাদেশের উন্নয়নে জাপানের সহায়তা অব্যাহত থাকবে : বিদায়ী জাপানি রাষ্ট্রদূত

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশের উন্নয়নে জাপানের সহায়তা আগের মতোই অব্যাহত থাকবে বলে আশ্বস্ত করেছে জাপান।
জাপানের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত মাসাকো ওয়াতানাবে ২২ আগস্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার কার্যালয়ে বিদায়ী সাাতে একথা বলেন। তিনি বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশের উন্নয়নের জন্য আমাদের সহায়তা অব্যাহত রাখব।’
রাষ্ট্রদূত আরো বলেন, বাংলাদেশের কয়েকটি মেগা প্রকল্পে ৬০০ বিলিয়ন ইয়েন ঋণ সুবিধা প্রদান করছে জাপান। জাপানের বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশের প্রতি গভীরভাবে নজর রাখছেন। কারণ তারা এদেশের গৃহনির্মাণ শিল্পে বিনিয়োগে আগ্রহী।
মাসাতো ওয়াতানাবে দুই দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক সম্পর্ক জোরদার করার ওপর গুরুত্বারোপ করার পাশাপাশি দ্বিপীয় সম্পর্ক জোরদারেও গুরুত্ব দেন। জাপানের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত তার দায়িত্ব পালনকালে সব রকমের সহযোগিতা প্রদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, তার ঢাকায় অবস্থানকাল সংপ্তি হলেও ফলপ্রসূ ছিল। এ প্রসঙ্গে রাষ্ট্রদূত উল্লেখ করেন, তার দায়িত্ব পালনকালে সব থেকে বড় সাফল্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাপান সফর।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ সব সময়ই জাপানকে তার নির্ভরযোগ্য ও বিশ্বস্ত বন্ধু মনে করে। ‘জাপানকে আমরা সব সময়ই আমাদের বড় বন্ধু বলে মনে করি। কেননা দেশটি সব সময়ই বাংলাদেশের উন্নয়নে সহযোগিতা করে আসছে।’ শেখ হাসিনা এ সময় বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকেই জাপানের বিভিন্ন সহযোগিতার কথা স্মরণ করেন। এ প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বাধীনতা-পরবর্তীকালে জাপান সফরের পরই বঙ্গবন্ধু সেতুর সম্ভাব্যতা যাচাই করা হয়েছিল। বাংলাদেশে চলমান বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এসব প্রাকৃতিক দুর্যোগের মধ্যেই এদেশের জনগণের বসবাস। কিভাবে এ দুর্যোগ মোকাবিলা করতে হয় তাও আমরা শিখে গেছি বলে উল্লেখ করেন শেখ হাসিনা।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রশাসন, প্রতিরা বাহিনীর সদস্য এবং তার দল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বানভাসি মানুষের কষ্ট লাঘবে কাজ করে যাচ্ছে। জাপানের সঙ্গে ব্যবসা ও বিনিয়োগ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে সরকার জাপানি বিনিয়োগকারীদের জন্য ১ হাজার একর জমি বরাদ্দ দিয়েছে। এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার সরকার সব রকমের নিরাপত্তাসহ জাপানের প্রকল্পগুলোকে সম্ভাব্য সব ধরনের সহযোগিতা প্রদান করবে।