ফিচার

মানুষের মন জয় করতে যেসব কৌশল জানা প্রয়োজন

ক্স মনোযোগী শ্রোতা
কারও মনে জায়গা পাওয়ার সেরা উপায় হল ভালো শ্রোতা হওয়া। সবার কথাই মনোযোগ দিয়ে শুনুন। আপনি যে মনোযোগ দিয়ে কথা শুনছেন, কত্থককে তা বোঝানোর জন্য ওই বিষয়ে প্রশ্ন করুন। ভালো লাগলে প্রশংসা করুন। পুরো কথা শুনে তারপর মন্তব্য করুন।
ক্স চোখের আলাপন
যার সঙ্গে কথা বলছেন তার চোখের দিকে তাকিয়ে কথা বলুন। এতে কথার গুরুত্ব বাড়ে। শ্রোতার মনোযোগ বাড়ে। প্রকাশ্য সভায় বা মিটিংয়ে বক্তব্য রাখতে হলে চেষ্টা করুন একে একে সবার চোখের দিকে তাকিয়ে কথা বলতে। কারো চোখের দিকে তাকিয়ে কথা বললে তাকে যে আপনি গুরুত্ব দিচ্ছেন, তা প্রকাশ পায়। এতে শ্রোতা আপনার ভক্ত হয়ে উঠবে।
ক্স একাগ্রচিত্ত
যখন আপনার প্রিয় ব্যক্তি তাঁর মনের কথা বা অভিব্যক্তি প্রকাশ করছে তখন অন্য কাজ করবেন না। আমেরিকার একটি বিশ্ববিদ্যালয় সম্প্রতি একটি সমীক্ষা চালিয়ে দেখেছে, অন্তত ৬৫ শতাংশ মানুষ কথা শোনার সময় মোবাইল বা ট্যাবের ব্যবহার করেন। কথা শোনার সময় অন্য কাজ করলে আপনার প্রিয় মানুষ ধারণা করতে পারে আপনি তাকে গুরুত্ব দিচ্ছেন না। এতে ধীরে ধীরে পারস্পরিক সম্পর্কের অবনতি ঘটতে থাকে।
ক্স যুক্তি ও মনের সমন্বয়
যুক্তি দিয়ে ভাবুন। কিন্তু কথা বলার সময় মনকে বলতে দিন। যুক্তি ও মনের সমন্বয় ঘটিয়ে কাউকে কিছু বললে তার কাছে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হয়ে উঠবেন আপনি।
ক্স বুদ্ধিমত্তা ও পরিবর্তন
যখন কথা বলবেন ছোটখাটো পরিবর্তন আনুন এবং কাজটি করতে হবে খুব বুদ্ধিমত্তার সাথে। সামনের মানুষ যদি আপনার জানা কোনো কথাই ফের বলে সেক্ষেত্রে ‘আমি জানি’ না বলে তার প্রশংসা করুন কিংবা সায় দিন। যেমন ‘তুমি একদম ঠিক বলেছো’। এতে তার মনে আপনার জন্য একটি জায়গা তৈরি হয়ে যাবে।
ক্স দৃষ্টিকোণ বোঝার চেষ্টা
কথা বলার সময় সামনের মানুষটার মতো করে ভাবুন। চিন্তা করুন সামনের মানুষটার পরিপ্রেক্ষিতে আপনি কী বললে কথাটা ঠিক দিকে এগোবে। সে আপনার কথা বুঝতে পারছে কি না? আসলে কথা বলারও একটা দাঁড়িপাল্লা থাকে। কখনই এমন কথা বলে দেবেন না যেন আপনার পাল্লাটা চট করে নিচে বা উপরে উঠে যায়। ভারসাম্য রাখুন।
ক্স প্রশংসা
প্রশংসা করুন এবং অবশ্যই মন থেকে। তবে প্রশংসা অনেক সময় উল্টে গিয়ে বিপরীত অর্থ দাঁড় করায়। প্রশংসা যেন তেল-মারা টাইপের না হয়ে যায় সেদিকে খেয়াল রাখুন।
ক্স বডি ল্যাঙ্গুয়েজ
বডি ল্যাঙ্গুয়েজ বা শরীরী ভাষা একটা মানুষকে অনেক উপরে বা নিচে উঠিয়ে বা নামিয়ে দিতে পারে। বডি ল্যাঙ্গুয়েজই বলে দেয় আপনি ভয় পেয়েছেন না আনন্দিত হয়েছেন। বডি ল্যাঙ্গুয়েজের কারণে অনেকে বারবার ছিনতাইকারীর টার্গেট হন, আবার অনেকে সারা জীবনে একবারও ছিনতাইয়ের মুখে পড়েন না। কারও সঙ্গে যখন কথা বলবেন তখন নিজের পা-হাতের দিকে খেয়াল রাখুন। ধরুন আড্ডার সময় হাত-পা নেড়ে কথা বললে আড্ডা জমে। আবার প্রেমের সময় চোখের ওঠা-নামাই সব কাজ করে দেয়। শরীরী ভাষাটাকে পজিটিভ রাখুন দেখবেন মানুষের মন জেতার কাজটা সহজ হবে।
ক্স সর্বদা সায় মিলানো
মানুষের কথায় কথা মেলালেই সবসময় প্রিয় থাকা যায় না। কথায় সায় মিলাতে গিয়ে শুধু হ্যাঁ, হ্যাঁ বললে কথা খুব বেশি বাড়ে না। এ জন্য যখন মনে করবেন, বিষয়টি ভালোভাবে জানা দরকার, তখন সব বিষয়ে সায় না জানিয়ে যুক্তি উপস্থাপন করুন। কেন কাজটি করা যাবে বা যাবে না, তার ব্যাখ্যা দিন। এতে কত্থকের কাছে আপনি একজন ব্যক্তিত্ববান মানুষে পরিণত হবেন।
ক্স আলাপে ভিন্নতা
কারো সঙ্গে কথার মাঝে বা ওঠা-বসার সময়ে কিছুটা ভিন্নতা আনুন। কথায় নতুনত্ব বা অন্যরকম কোনো দৃষ্টিভঙ্গি যোগ হলে শ্রোতার মনে আপনার জায়গা পাকা হয়ে যাবে। আসলে মানুষ নতুন কিছু শুনতে খুব ভালোবাসে। সেই নতুন তথ্যটি যদি আপনি দেন তাহলে নিশ্চিত লাভ আপনারই হবে।