প্রতিবেদন

শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করে ৯ মার্কিন সিনেটরের চিঠি

নিজস্ব প্রতিবেদক : মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে বিতাড়িত কয়েক লাখ রোহিঙ্গা মুসলিমকে বাংলাদেশে আশ্রয় দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন ৯ জন মার্কিন সিনেটর। সম্প্রতি প্রধানন্ত্রী শেখ হাসিনাকে পাঠানো এক চিঠিতে এই প্রশংসা করা হয়। চিঠির শুরুতে শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ করে বলা হয়, রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্ব ও এদের প্রতি সহানুভূতি দেখানোয় তাকে ধন্যবাদ। মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর সেনাবাহিনীর দমন-পীড়ন শুরুর পর বাংলাদেশের সীমান্ত খোলা রাখা ও পাঁচ লাখের বেশি রোহিঙ্গা মুসলিমকে সকল প্রকার সহায়তা দেয়ার সিদ্ধান্তকেও প্রশংসা করা হয়। চিঠিতে বলা হয়, এসব লোককে আশ্রয় ও নিরাপত্তা দিয়ে আপনার (শেখ হাসিনা) সরকার অনন্য সাধারণ উদারতা দেখিয়েছে। এই সংকটকালে আপনার (শেখ হাসিনার) ভূমিকাকে বিশ্ববাসী আশার আলোকবর্তিকা হিসেবে দেখছে।
চিঠিতে মেরিল্যান্ডের বেঞ্জামিন এল কার্ডিন, কলোরাডোর কোরি গার্ডনার, ইলিনয়ের রিচার্ড জে ডার্বিন, ফ্লোরিডার মার্কো রুবিও, নিউ হ্যাম্পশায়ারের জিনি শাহিন, অরেগনের জেফ মার্কলে, ভার্জিনিয়ার টিম কেইন, ডেলাওয়ারের ক্রিস্টোফার এ কর্নস ও নিউজার্সির সিনেটর কোরি বুকার স্বাক্ষর করেন। স্বাক্ষরদাতাদের ৭ জন ডেমোক্র্যাট ও ২ জন রিপাবলিকান সিনেটর। চিঠিতে জাতিসংঘে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে শেখ হাসিনার ভাষণ ও কফি আনান কমিশনের প্রতিবেদনে সমর্থনদানের বিষয়কে স্বাগত জানানো হয়। ওই চিঠিতে শেখ হাসিনা জাতিসংঘে তার ভাষণে রাখাইনে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা খতিয়ে দেখতে জাতিসংঘ তথ্যানুসন্ধান মিশন প্রেরণের আহ্বানকে সিনেটররা সমর্থন জানান। বাংলাদেশের সম্পদের সীমাবদ্ধতার কারণে শরণার্থীদের দুর্ভোগের বিষয়টি মার্কিন সিনেটররা অবগত বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়। একই সঙ্গে চিঠিতে বাংলাদেশ সরকারকে জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর, আন্তর্জাতিক অভিবাসন বিষয়ক সংস্থা আইওএমসহ অন্যান্য এনজিওর সঙ্গে চলমান সমস্যা মোকাবিলায় কাজ করার আহ্বান জানানো হয়।