প্রতিবেদন

ডাউন সিনড্রম আক্রান্ত শিশু ও অটিস্টিক জনগোষ্ঠীর কল্যাণে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার

নিজস্ব প্রতিবেদক
ডাউন সিনড্রম আক্রান্ত সকল শিশু ও অটিস্টিক জনগোষ্ঠীর কল্যাণে কাজ করছে বর্তমান সরকার। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল এ সেক্টরে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের পাশাপাশি দেশি-বিদেশি সংস্থা, স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠানসহ সমাজের সব শ্রেণি-পেশার মানুষকে ডাউন সিনড্রম আক্রান্ত সকল শিশু ও অটিস্টিক জনগোষ্ঠীর কল্যাণে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, অটিস্টিক শিশু শনাক্তকরণ, সেবা প্রদান এবং তাদের মা-বাবা বা যতœদানকারীদের সঠিকভাবে প্রশিক্ষণ প্রদানের লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ইনস্টিটিউট অব পেডিয়াট্রিক নিউরোডিজঅর্ডার অ্যান্ড অটিজম স্থাপন করা হয়েছে। এ সকল কর্মসূচি গ্রহণের ফলে অটিস্টিক, ডাউন সিনড্রম আক্রান্ত শিশু ও প্রতিবন্ধীদের প্রতি সমাজের নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন হয়েছে বলে উল্লেখ করেন শেখ হাসিনা।
প্রধানমন্ত্রী ২১ মার্চ জাতীয় পর্যায়ে ৫ম ও ১৩তম বিশ্ব ডাউন সিনড্রম দিবস-২০১৮ উপলক্ষে দেয়া এক বাণীতে এ আহ্বান জানান।
দিবসের এবারের প্রতিপাদ্য ‘আমার কমিউনিটি আমার দায়িত্ব’Ñ অত্যন্ত সময়োপযোগী হয়েছে মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ডাউন সিনড্রম একটি জেনেটিক রোগ। এই রোগে শিশুর শারীরিক বৃদ্ধি ব্যাহত হয় ও বুদ্ধিমত্তা স্বাভাবিকের তুলনায় কম থাকে। বাচ্চা গর্ভে থাকা অবস্থায় স্ক্রিনিং পরীক্ষার মাধ্যমে বা জন্মের পর সরাসরি পর্যবেক্ষণ ও জেনেটিক পরীক্ষার মাধ্যমে এ রোগ শনাক্ত করা যায়। শিক্ষা, যথাযথ যতœ ও ভালোবাসা রোগীর জীবনমান উন্নয়নে ভূমিকা রাখে এবং এক সময় অটিস্টিক ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী শিশুদের প্রতি সমাজের নেতিবাচক ধারণা ছিল উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাঁর (প্রধানমন্ত্রীর) কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল-এর নিরলস প্রচেষ্টায় জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অটিজম বিষয়ে জনসচেতনতা সৃষ্টি হয়েছে। তাঁর পরামর্শে আমাদের সরকার বিগত ৯ বছরে বিশেষ বৈশিষ্ট্যের অধিকারী এ জনগোষ্ঠীকে সমাজের মূলধারায় সম্পৃক্ত করতে ব্যাপক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। তিনি বলেন, আমরা প্রতিবন্ধীদের শিক্ষা উপবৃত্তি প্রদান, বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুল স্থাপন, বিশেষ শিক্ষা কেন্দ্র স্থাপন, প্রতি জেলায় প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র এবং অটিজম রিসোর্স সেন্টার স্থাপন করেছি। এ ছাড়াও আমরা অটিস্টিক ব্যক্তিদের অধিকার সুরক্ষায় আইন ও বিধি প্রণয়ন করেছি। শিক্ষা ও বিনোদনের জন্য জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন স্কুল ও পার্ক স্থাপন করেছি।
বিশ্ব ডাউন সিনড্রম দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল ডাউন সিনড্রম আক্রান্ত ব্যক্তি, শিশু-কিশোর, তাদের পরিবার ও পরিচর্যাকারীগণকে শুভেচ্ছা এবং এ উপলক্ষে গৃহীত সকল কর্মসূচির সাফল্য কামনা করেন।