Uncategorized

তথ্যপ্রযুক্তি : রমজান বিষয়ক প্রয়োজনীয় কিছু অ্যাপস

স্বদেশ খবর ডেস্ক
রমজান মাস চলছে। বিশ্বজুড়ে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা রোজা রাখছেন। সিয়াম সাধনার এ মাসে হঠাৎ করেই জীবনযাপনে বেশ পরিবর্তন আসে। তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলা অনেকের জন্যই বেশ কঠিন হয়ে যায়। সেহরির সময় ওঠা, ইফতারি বা সেহরির সময় কখন ইত্যাদি নানা বিষয় জানার জন্য সহযোগীর সহায়তা দরকার। আর প্রযুক্তির যুগে এই রমজান মাসে আপনাকে সহায়তা করতে একটি অ্যাপই যথেষ্ট। এখানে জেনে নিন রমজান মাসের জন্য সেরা কয়েকটি অ্যাপের কথা।

মুসলিম প্রো ২০১৬ মুসলমানদের ধর্মকর্ম পালনের জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় অ্যাপ। এখানে মুসলমানদের নানাধর্মী অনুষ্ঠান, রোজার সময়, নামাজের সঠিক সময় ইত্যাদি আপনার অবস্থান অনুযায়ী প্রদান করবে। মুসলিম প্রো ২০১৬-তে আরো আছে ডিজিটাল তসবিহ। হিজরি বছরের সব পাবেন এখানে। তাছাড়া আপনার আশপাশের হালাল রেস্টুরেন্ট এবং মসজিদের অবস্থান নির্দেশ করে দেবে। সেখানে রয়েছে অর্থসহ মহান আল্লাহতায়ালার ৯৯টি নামের তালিকা। অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস অপারেটিং সিস্টেমের জন্য বানানো হয়েছে এটি।

এই অ্যাপের মাধ্যমে আপনি প্রয়োজনীয় দোয়াগুলো পাবেন। পূর্ণাঙ্গ তালিকা ১৮টি ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে। কাজেই ব্যস্ততার মধ্যেও সেখান থেকে দরকারি দোয়াটি খুঁজে নিতে পারবেন সহজেই। এটা ছোট-বড় সবার জন্য দারুণ একটি অ্যাপ। এর অনুবাদ এবং শব্দাক্ষর আপনাকে যেকোনো দোয়ার সঠিক অর্থ অনুধাবন করতে সহায়তা করবে। অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস অপারেটিং সিস্টেমের জন্য বানানো হয়েছে এটি।

মুসলিম প্রো ২০১৬ এর মতোই এই অ্যাপটি দিয়েও আপনার সঠিক অবস্থান, সময়ের অঞ্চল এবং ৫ ওয়াক্ত নামাজের সময়সূচি জানিয়ে দেবে। আইপ্রে-তে আছে কেবলা কম্পাস; অর্থাৎ এর ব্যবহারে আপনি কেবলা নির্দেশ করে নিতে পারবেন। এই অ্যাপটি থেকে রমজানের যেকোনো প্রয়োজন মেটাতে পারবেন।

রমজান মাসে অনেকেই পবিত্র কোরআন খতম দেন। কিন্তু যারা ব্যস্ত থাকেন, তাদের কোরআনের একটি কপি সঙ্গে নিয়ে চলাফেরা করা কঠিন বিষয়। যারা অফিসের ব্যস্ততায় ছুটোছুটি করতে থাকেন এবং কোরআন তেলাওয়াতও করতে চান তাদের জন্য এই অ্যাপটি দারুণ কার্যকরী হতে পারে। এখানে ৪৫টি ভাষায় কোরআন পড়ার সুযোগ আছে। সেই সঙ্গে বিখ্যাত কারিদের তেলাওয়াত থেকে সঠিক পদ্ধতিতে কোরআন পড়া শিখতে পারবেন।

খড়ংব ওঃ! (ভৎবব)
এটা আসলে ক্যালরি মাপার অ্যাপ। রমজান মাসে এই অ্যাপের খবর দেয়ার হয়ত কোনো কারণ খুঁজে পাচ্ছেন না। কিন্তু ফজরের আজান থেকে মাগরিবের আজান পর্যন্ত রোজা রাখার পরে আপনার অজান্তেই যথেষ্ট ওজন কমে। তাছাড়া অন্য সময়ের মতো যথেষ্ট ক্যালরিও প্রবেশ করছে না দেহে। আবার ইফতারির পর কী পরিমাণ ক্যালরি গ্রহণ করছেন তাও জানা দরকার। যারা ওজনের বিষয়ে খেয়াল রাখতে চান তাদের জন্য লুজ ইট! অ্যাপটি দারুণ।

এই অ্যাপটিকে একটি ডিজিটাল কোরআনও বলা যেতে পারে। পবিত্র কোরআনের বিষয়াদি নিয়েই সাজানো হয়েছে সম্পূর্ণ অ্যাপ। স্মার্টফোনে অ্যাপটি ইনস্টল করে নিলে ডিভাইসের পর্দায় সম্পূর্ণ ত্রিশ পারা সহজেই তেলাওয়াতের সুবিধা পাওয়া যাবে। পবিত্র কোরআনের ত্রিশটি ভাষায় অনুবাদও যুক্ত আছে এতে। সুতরাং কোরআনের নিজস্ব ভাষা জানা না থাকলেও পাঠকারী যে ভাষায় পারদর্শী সে ভাষাতেই এর অর্থ বুঝে নিতে পারবে। পাশাপাশি কোনো আয়াত কিংবা আয়াতের অর্থ সার্চ করে খুঁজে নেয়ার সুবিধাও সংযুক্ত আছে এতে।

এই অ্যাপটিকে শুধু রোজার মাসের জন্যই তৈরি করা হয়েছে। নির্মাতা ডেভেলপাররা দাবি করছেন এটিই নাকি রমজানের সেহরি ও ইফতার বিষয়ক প্রথম পূর্ণাঙ্গ অ্যাপ। এতে রোজা রাখার নিয়মনীতি থেকে শুরু করে সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি সবই পাওয়া যাবে। পাশাপাশি দেয়া আছে তারাবির নামাজের নিয়মাবলিসহ পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করার সুবিধা। এতেই শেষ নয়। রমজানের পুরো মাসজুড়ে রমজানের ফজিলত নিয়ে কোরআনের বিভিন্ন আয়াত, হাদিসের কথা এবং রমজানে আমল করার মতো দোয়াগুলো নোটিফিকেশনের মাধ্যমে জানিয়ে দিবে সংশ্লিষ্ট মোবাইলে। একই সাথে ধর্মীয় নানা বিষয় নিয়ে প্রশ্ন এবং নিজের মতামত প্রকাশ করতে পারা যাবে রামাদান লিগ্যাসির সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে।

এটি একটি ইসলামি ছবি শেয়ারিংয়ের অ্যাপ্লিকেশন। কোরআনের বিভিন্ন আয়াত এবং হাদিসের উদ্ধৃতি সংবলিত যে সকল ছবি আছে তার সবই পাওয়া যাবে এই অ্যাপে এবং ব্যবহারকারীর জন্যও এ সংক্রান্ত ছবি আপলোড করার সুবিধা রাখা হয়েছে এই অ্যাপে। আর বাড়তি সুবিধা হিসেবে থাকছে ফেসবুক, গুগল প্লাস কিংবা ইনস্টাগ্রামে পছন্দের ছবি শেয়ার করার সুবিধাও।