প্রতিবেদন

এ বছরের সেপ্টেম্বরেই চালু হচ্ছে এশিয়ার বৃহত্তম পঙ্গু হাসপাতাল

নিজস্ব প্রতিবেদক : রোগীর চাপ সামলাতে অর্থোপেডিক হাসপাতালের নতুন ১৪ তলা ভবন নির্মাণ কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এটি হবে এশিয়ার বৃহত্তম পঙ্গু হাসপাতাল। আগামী সেপ্টেম্বর মাসে এই হাসপাতাল চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।
গত ১৯ জুন জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের (নিটোর বা সাবেক পঙ্গু হাসপাতাল) বর্ধিত ভবনের অগ্রগতি পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।
মোহাম্মদ নাসিম বলেন, হাসপাতালের কাজ প্রায় শেষের দিকে। আশা করছি এ বছরের সেপ্টেম্বর মাসে মধ্যে অর্থাৎ প্রধানমন্ত্রীর জন্মের মাসেই আমরা এই সম্প্রসারিত ভবনের উদ্বোধন কাজ সম্পন্ন করে এখানকার স্বাস্থ্যসেবা চালু করতে পারব।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এই হাসপাতাল আগে থেকেই ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট ছিল। এখন বর্ধিত হয়ে তা ১ হাজার শয্যায় উন্নীত করা হচ্ছে। এখানে উন্নত প্রযুক্তিসম্পন্ন যন্ত্রপাতি থাকবে, যার মাধ্যমে আরও উন্নতমানের চিকিৎসা দেয়া সম্ভব হবে। এছাড়া এই হাসপাতালে ব্যবহৃত পানি পুনরায় ব্যবহারে (রিসাইকিং) ব্যবস্থা থাকছে। যে পানি খাওয়া ছাড়া অন্যান্য কাজে ব্যবহার করা যাবে।
হাসপাতাল ভবন পরিদর্শনকালে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম ছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন, গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, নিটোরের পরিচালক ও অর্থোপেডিক সার্জারি বিভাগের অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল গণি মোল্লাসহ অন্যান্য ডাক্তাররা। এর আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বর্ধিত ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালটির নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেন এবং সংশ্লিষ্টদের দ্রুত উদ্বোধনের জন্য সবকিছু প্রস্তুত করার নির্দেশ দেন।