ফিচার

ছুটি শেষে কাজে ফিরে

মানসিক অস্থিরতা, অফিসের কাজের চাপের কারণে আমাদের মধ্যে হতাশা জন্ম নেয়। সেই হতাশা কাটাতে বছরের দুই-তিনটি উৎসবকেন্দ্রিক ছুটি দারুণ কাজ করে। তবে দুঃখজনক হলেও সত্য যে, যেকোনো আনন্দই যেমন খুব দ্রুত শেষ হয়ে যায়; তেমনি দেখতে দেখতে যেকোনো ছুটিও দ্রুত শেষ হয়ে যায়। ঈদের দীর্ঘ ছুটিতে গ্রামের বাড়ি যাওয়া, অনেক সময় ধরে ঘুমানো, টিভি দেখা, আত্মীয়স্বজন ও বন্ধুর বাসায় বেড়ানো অথবা দেশি-বিদেশি কোনো বিনোদন কেন্দ্রে অবকাশযাপন শেষে এবার কাজে ফেরার পালা। প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদের আনন্দ শেষ করে আবার ফিরে আসা কর্মব্যস্তময় জীবনে।
ছুটি উপভোগ শেষে কাজে ফেরাটা যেন অস্বস্তিকর একটি বিষয়। তবুও ফিরতে হবে। তাই ছুটি শেষে আপনি যেন কাজের আনন্দও উপভোগ করতে পারেন সে বিষয়ে জেনে নিন কিছু কৌশল।

সহকর্মীদের সঙ্গে কুশল বিনিময়
দীর্ঘ ছুটির পর কাজে ফিরে প্রথমেই আপনার সহকর্মীদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করে নিন। এতে করে যেমন তাদের প্রতি আপনার ভালোবাসা এবং শ্রদ্ধাবোধটা অটুট থাকবে, ঠিক তেমনি কাজের েেত্রও পেয়ে যাবেন পারস্পরিক সহযোগিতাসহ বেশ কিছু সুবিধা।

কাজের তালিকা করুন
ছুটির পরে কাজে ফেরার আগে আপনার কাজের একটি তালিকা তৈরি করুন। ছুটির আগে সর্বশেষ যে কাজটি করেছেন তাও তালিকাভুক্ত করে নেয়াটা গুরুত্বপূর্ণ। এতে করে আপনি কোথায় কাজ শেষ করেছিলেন তা মনে করতে পারবেন, যা নতুন কাজ শুরু করার জন্য প্রয়োজনীয়। যে কাজগুলো বেশি গুরুত্বপূর্ণ সেগুলো আগে তালিকাভুক্ত করুন। তবে খেয়াল রাখবেন তালিকাটি যাতে বেশি দীর্ঘায়িত না হয়।

লাঞ্চ বক্সে মাংস বাদ দিন
মাংস শারীরিক কর্মমতা এবং ফিট থাকার জন্য উপকারী। কিন্তু যেকোনো কিছুই অতিরিক্ত হওয়া খারাপ। ঈদে এমনিতেই মাংস খাওয়া হয় প্রচুর। মাংসের প্রোটিন ও অতিরিক্ত কোলেস্টেরল হজম করতে পাকস্থলীকে প্রচুর কাজ করতে হয়। তাই পাকস্থলীকেও কিছুটা বিশ্রাম দেয়া প্রয়োজন। ফলে ঈদের পরে অফিসে যাওয়ার সময় আপনার লাঞ্চ বক্সে মাংস বাদ দিয়ে মাছ, সবজি এবং ফল রাখুন।

মেইল চেক করুন
কর্মেেত্রর প্রথমদিনেই আপনার ডেস্কে হয়ত অনেক কাজ জমা হয়ে গেছে। এজন্য প্রথমেই ইনভেলাপ ও মেইল ওপেন করে ইনবক্সের সবগুলো মেইল খুলে প্রতীকী ছবি দেখুন। পরে দেখবেন বলে জমিয়ে রাখবেন না। তবে গুরুত্বপূর্ণ মেইলগুলো আগে চেক করা উচিত। প্রথমেই এগুলো দেখে শেষ করলে আপনার কাজ অনেকটা কমে যাবে।

একসঙ্গে অনেক কাজ করবেন না
আপনার হয়ত অনেক ধরনের কাজ জমা হয়ে আছে। কিন্তু তাই বলে সব ধরনের কাজ একসঙ্গে শুরু করবেন না। যেকোনো একটি কাজ শুরু করুন এবং মনোযোগ দিয়ে কাজটি শেষ করার পর অন্য কাজে হাত দিন। একসঙ্গে অনেক কাজ শুরু করলে সব হ-য-ব-র-ল হয়ে যাবে এবং আপনার স্ট্রেস বৃদ্ধি পাবে। ছুটিতে আপনি যে প্রশান্তি অর্জন করেছেন তা নষ্ট করার প্রয়োজন নেই।

সময়মতো অফিস ত্যাগ করুন
আপনি অনেকদিন ছুটিতে ছিলেন বলেই অফিস টাইমের পরেও আপনাকে বাড়তি সময় অফিসে থাকতে হবে এমন নয়। সময়মতো অফিসে উপস্থিত হওয়া যেমন জরুরি তেমনি কাজ শেষে নির্দিষ্ট সময়ে অফিস ত্যাগ করাও জরুরি। কেননা প্রত্যেকেরই পরিবার রয়েছে। এতে আপনার কাজের প্রতি আগ্রহ থাকবে এবং পরিবারকেও সময় দিতে পারবেন।

বাধা দূর করুন
কাজ ভালোভাবে শেষ করার জন্য আপনার বাধাগুলোকে চিহ্নিত করুন এবং সেগুলোকে এড়িয়ে যান। ৫ মিনিট পরপরই যদি কাজের মধ্যে বাধা আসে তাহলে সময়মতো কাজ শেষ করা অসম্ভব। এজন্য কর্মেেত্র আপনার সেল ফোনটি অফ রাখতে পারেন এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম যেমন ফেসবুক, টুইটার ও ইউটিউব ইত্যাদি অ্যাকাউন্টগুলোও বন্ধ রাখুন। এগুলোতে সময় দিতে গিয়ে যেন আপনার গুরুত্বপূর্ণ কাজে ব্যাঘাত না ঘটে সেদিকে নজর রাখুন।
গ্রন্থনা : স্বদেশ খবর ডেস্ক