প্রতিবেদন

নৌবাহিনীর ২০১৮-এ ব্যাচের ৭৭৪ জন নবীন নাবিকের শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ২০১৮-এ ব্যাচের ৭৭৪ জন নবীন নাবিকের শিা সমাপনী কুচকাওয়াজ ২১ জুন খুলনা নৌঘাঁটি বানৌজা তিতুমীর প্যারেড গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল নিজামউদ্দিন আহমেদ, এনবিপি, ওএসপি, বিসিজিএম, এনডিসি, পিএসসি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মনোজ্ঞ কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও আকর্ষণীয় মার্চপাস্টের সালাম গ্রহণ করেন। পরে তিনি কৃতী নবীন নাবিকদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন। নৌবাহিনীর ২০১৮-এ ব্যাচের নবীন নাবিকদের মধ্যে মো. আবু রায়হান, ডিই/পিএম-২/ইউটি পেশাগত ও সকল বিষয়ে সেরা চৌকস নাবিক হিসেবে ‘নৌ প্রধান পদক’ লাভ করেন। এছাড়া হাবিবুর রহমান, ডিই/ইউসি/ইউটি দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে ‘কমখুল পদক’ এবং মো. শাহাদাত হুসাইন, ডিই/টপ-২/ইউটি তৃতীয় স্থান অধিকার করে ‘তিতুমীর পদক’ লাভ করেন।
নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল নিজামউদ্দিন আহমেদ নবীন নাবিকদের উদ্দেশে তার ভাষণে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর দূরদর্শিতা এবং পরবর্তীতে তার সুযোগ্য উত্তরসূরি বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশের ক্রমাগত অর্থনৈতিক উন্নয়নসহ সামরিক বাহিনী, বিশেষ করে নৌবাহিনীর অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধিত হয়েছে।
বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে একটি আধুনিক বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলার ল্েয ইতোমধ্যে বিভিন্ন স্বল্প এবং দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় বর্তমান সরকারের সময়ে নৌবহরে যুক্ত হয়েছে সর্বোচ্চ সংখ্যক যুদ্ধজাহাজ, মেরিটাইম পেট্রোল এয়ারক্র্যাফট, হেলিকপ্টার ও বিশেষায়িত ফোর্স সোয়াডস। তাছাড়া গত বছর নৌবহরে দু’টি সাবমেরিন সংযোজনের মাধ্যমে বাংলাদেশ নৌবাহিনী এখন ত্রিমাত্রিক শক্তি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। পাশাপাশি পটুয়াখালীর রাবনাবাদে নৌবাহিনীর সর্ববৃহৎ নৌ-ঘাঁটি বানৌজা শের-ই-বাংলা, ঢাকার খিলেেত বানৌজা শেখ মুজিব নামে পূর্ণাঙ্গ নৌঘাঁটি এবং চট্টগ্রামের পেকুয়ায় একটি সাবমেরিন ঘাঁটি ‘বানৌজা শেখ হাসিনা’র নির্মাণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল নিজামউদ্দিন আহমেদ নবীন নাবিক প্রশিণ বিদ্যালয় থেকে অর্জিত জ্ঞান যথাযথভাবে কাজে লাগিয়ে নিজেদেরকে যোগ্য নাবিক হিসেবে গড়ে তোলা এবং ভবিষ্যৎ কর্মজীবনে এই প্রশিণ কাজে লাগিয়ে জাতীয় নিরাপত্তা ও অগ্রগতির পথে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালনের আহবান জানান। এছাড়া পেশা হিসেবে দেশ সেবা ও দেশ গড়ার পবিত্র দায়িত্বকে বেছে নেয়ায় নৌপ্রধান নবীন নাবিকদেরকে আন্তরিক অভিনন্দন জানান। নৌবাহিনী প্রধান সকল নৌসদস্যকে দেশপ্রেমে অনুপ্রাণিত হয়ে দেশ সেবায় একযোগে কাজ করার নির্দেশনা প্রদান করেন।