ফিচার

রূপচর্চা

ত্বকের সঠিক যতেœ যা করবেন

স্বদেশ খবর ডেস্ক
ত্বক ফ্রেশ তো সব ফ্রেশ। তাই ত্বক পরিচ্ছন্ন রাখতে এর সঠিক যতœ নিতে হয়। কিভাবে ত্বকের যতœ নেবেন, সে বিষয়ে নানা জনের নানা মত থাকতে পারে। তবে কিছু নিয়মকানুন মেনে চললে ত্বক সবসময়ই সতেজ থাকে। স্বদেশ খবর পাঠকদের জন্য তেমনই কিছু নিয়মকানুন দেয়া হলো; যা অনুসরণে আপনার ত্বক সবসময়ই থাকবে লাবণ্যময়।

মেকআপ ব্রাশ পরিষ্কার করুন
যে ব্রাশ দিয়ে রোজ মেকআপ করেন, সেটিই আসলে ধূলোময়লা, রোগজীবাণুর আখড়া। এটি থেকে ত্বকে সংক্রমণ ছড়াতে পারে যেকোনো সময়। তাই মেকআপের ব্রাশগুলো ভালো করে পরিষ্কার করুন। সপ্তাহে অন্তত একবার পরিষ্কার করতে পারলে ভালো। যে ব্যাগে ব্রাশ রাখেন, পরিষ্কার রাখতে হবে সেটিও।

প্রডাক্টের উপাদান যাচাই করে নিন
কেনার আগে মেকআপ প্রডাক্টের উপাদান যাচাই করে নেয়া খুব জরুরি। প্যারাবেন, অ্যালকোহল বা চড়া সুগন্ধিযুক্ত মেকআপ না কেনাই ভালো। এই ধরনের মেকআপে সাধারণত কড়া রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়, যা আপনার ত্বকের জন্য অত্যন্ত তিকর।

ব্যবহারের অযোগ্য মেকআপ
ফেলে দিন
কোন উপাদান আপনার ত্বকের জন্য খারাপ সেগুলো চিনে রাখুন, এড়িয়ে চলুন। কড়া রাসায়নিকযুক্ত কোনো কসমেটিকস বা মেকআপ প্রডাক্ট যদি দাম দিয়েও কিনে থাকেন, তারপরও ফেলে দিন। এতে হাঁফ ছেড়ে বাঁচবে আপনার ত্বক। মেয়াদ ফুরিয়ে যাওয়া মেকআপ ব্যবহার করবেন না ভুলেও।

ভরসা রাখুন প্রাকৃতিক উপাদানে
রাসায়নিকের বদলে বেছে নিন প্রাকৃতিক উপাদান। রাসায়নিক মেকআপ রিমুভারের বদলে মেকআপ তুলুন অলিভ অয়েল দিয়ে। দোকান থেকে ব্র্যান্ডেড স্ক্রাব না কিনে ব্যবহার করুন কফি আর চিনি দিয়ে তৈরি ঘরোয়া স্ক্রাব। রাসায়নিক এড়িয়ে চলতে পারলে আপনার ত্বকও তরতাজা থাকবে।

পাঁচমিশেলি প্রডাক্ট ব্যবহার নয়
অনেক ধরনের বিউটি প্রডাক্ট একসঙ্গে ব্যবহার করবেন না। যেকোনো প্রডাক্টের ফল পেতে সময় লাগে, অধৈর্য হয়ে একবার এ প্রডাক্ট, একবার ও প্রডাক্ট করবেন না। রূপচর্চার একটা রুটিন ঠিক করে নিন, সেটা একনিষ্ঠ হয়ে মেনে চলুন। ফল দেখতে পাবেন অবশ্যই।

প্রকৃতির কাছাকাছি থাকুন
সকাল ৮টা পর্যন্ত বিছানা আঁকড়ে না থেকে ভোরে ঘুম থেকে উঠে পড়–ন। হাঁটতে বেরোন। পার্ক থাকলে সেখানে চলে যান। না থাকলে ফাঁকা রাস্তার ধার দিয়ে জোরকদমে হাঁটুন বা জগিং করুন। সকালের টাটকা হাওয়ায় দিনটা শুরু করতে পারলে সারাদিন তরতাজা লাগবে। কাজের ফাঁকে ছুটি বের করতে পারলে সময়টা গাছপালা, প্রকৃতির মধ্যে কাটান। পিওর অক্সিজেন পাবেন।

ফেসিয়াল
ফেসিয়ালে কিনজিং, এক্সপার্ট ম্যাসাজ থেকে শুরু করে সেল রিজেনারেশন, টক্সিন নির্গমন সবই হয়। মাসে অন্তত একবার ফেসিয়াল করুন। তৈলাক্ত ত্বকে কে বেসড ফেসিয়াল এবং শুষ্ক ত্বকে ক্রিম ফেসিয়াল ভালো কাজ করে।

ব্রেকফাস্ট বাদ নয়
সকালের খাবার আপনার সারাদিনের সবচেয়ে বড়ো রসদ। তাই হাজার তাড়াহুড়ো থাকলেও কোনোমতেই ব্রেকফাস্ট বাদ দেবেন না। প্রতিদিন ডায়েটে অন্তত একটা ফল থাকা দরকার। দুপুরের খাবারটাও ব্যালান্সড হওয়া খুব দরকার। শরীর ভেতর থেকে পুষ্টি পেলে ত্বক এমনিতেই সুস্থ থাকবে।

প্রতিদিন ডাবের পানি খান
সুস্থ ঝলমলে ত্বকের জন্য ডাবের পানি অপরিহার্য। মুখের অবাঞ্ছিত দাগছোপ তুলে লাবণ্যময় ত্বক পেতে রোজ ডাবের পানি খান। ত্বকে ভরপুর আর্দ্রতা জোগাতেও ডাবের পানির জুড়ি নেই।

ব্যায়াম করুন
শরীর সুস্থ ও সুঠাম রাখতে ব্যায়ামের বিকল্প নেই। আর তার জন্য ঘটা করে জিমে ভর্তি হওয়ারও দরকার নেই। প্রতিদিন হাত পা খেলান, ফ্রিহ্যান্ড ব্যায়াম বা যোগব্যায়াম করুন। শরীর ঝরঝরে থাকলে ত্বক আর চুল দুইই ভালো থাকবে।