ফিচার

রেসিপি

শীত মানেই খেজুরের রস। সে রসে তৈরি হয় খেজুর গুড়। স্বাদে ও গন্ধে এই গুড় অতুলনীয়। এই গুড় দিয়ে তৈরি নানা স্বাদের পিঠা ও পায়েস সব বয়সের মানুষেরই পছন্দ। নতুন চালের গুঁড়ার সঙ্গে খেজুর গুড় মিশিয়ে পরিবারের সদস্যদের জন্য তৈরি করুন পিঠা-পায়েস। এ জন্য স্বদেশ খবর কিছু পিঠা-পায়েসের রেসিপি দিচ্ছে। রেসিপি অনুসরণ করে আজই পিঠা তৈরির কাজে লেগে যান। উপভোগ করুন নিজ হাতে পিঠা-পায়েস তৈরির আনন্দ।
খেজুর গুড়ের তিলান্ন

উপকরণ: খেজুর গুড় ১ কাপ, সাদা ভাজা তিল আধা কাপ, দুধ ১ লিটার, পোলাও চাল (আধা ভাঙা) আধা কাপ, বাদামকুচি ১ টেবিল চামচ, নারিকেল কোরা ২ টেবিল চামচ, মাওয়া গুঁড়া ২ টেবিল চামচ।
প্রস্তুত প্রণালি: দুধে চাল দিয়ে ফুটতে দিতে হবে। চাল সেদ্ধ হয়ে এলে তাতে নারিকেল, তিল, গুড় ও মাওয়া দিয়ে অনবরত নাড়তে হবে। ঘন হয়ে এলে বাদামকুচি দিয়ে নামিয়ে ঠা-া করে পরিবেশন করুন।

খেজুর গুড়ের দুধ চিতই

উপকরণ: আতপ চালের গুঁড়া ৩ কাপ, লবণ পরিমাণমতো, কুসুম গরম পানি প্রয়োজনমতো, গুড়ের শিরার জন্য ১ লিটার দুধ ও ১ কাপ খেজুরের গুড়।
প্রস্তুত প্রণালি: চালের গুঁড়া, লবণ ও পানি দিয়ে একটি গোলা তৈরি করে ১ ঘণ্টা ঢেকে রাখুন। গোলা যেন পাতলা বা বেশি ঘন না হয়। মাটির ছাঁচের খোলা অথবা লোহার কড়াই চুলায় দিন। তাতে সামান্য তেল ও লবণ মাখিয়ে গরম করে মুছে নিন। বড় চামচের ১ চামচ করে গোলা প্রতিটি ছাঁচে ভরে ঢেকে দিন।
তিন-চার মিনিট পর ঢাকনা খুলে পিঠা তুলে নিতে হবে। গুড় ও দুধ দিয়ে জ্বাল দিয়ে শিরা তৈরি করে তাতে পিঠা এক রাত ভিজিয়ে রেখে পরিবেশন করুন দুধ চিতই।

চুষি পায়েস

উপকরণ: চালের গুঁড়া ৩০০ গ্রাম, ঘন দুধ ১ লিটার, খেজুর গুড় ১ কাপ, তেজপাতা ২টি এবং লবণ ও পানি পরিমাণমতো।
প্রস্তুত প্রণালি: কড়াইয়ে পরিমাণমতো পানি ও লবণ দিয়ে ফুটান। তাতে ২৫০ গ্রাম চালের গুঁড়া দিয়ে একটা ম- তৈরি করে নিন। রুটি বেলার পিঁড়িতে অল্প করে ম- নিয়ে লম্বা লম্বা লতার মতো বানিয়ে তা থেকে ছোট ছোট করে কেটে চুষি তৈরি করতে হবে। এবার সসপ্যানে দুধ, গুড় ও তেজপাতা জ্বাল দিয়ে তাতে চুষিগুলো দিয়ে ফুটাতে হবে। একটু ঘন হলে নামিয়ে ঠা-া করে পরিবেশন করুন।

মিঠা টুকরা

উপকরণ: পাটালি গুড় ১ কাপ, গুঁড়া দুধ ১ কাপ, পাউরুটি (বড়) ৫ টুকরা, বাদামকুচি ১ টেবিল চামচ, কিশমিশকুচি ১ টেবিল চামচ, এলাচির গুঁড়া আধা চা-চামচ, ঘি ১ টেবিল চামচ, মাওয়া গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, কর্নফাওয়ার ১ টেবিল চামচ, তেল পরিমাণমতো।
প্রস্তুত প্রণালি: প্রথমে পাউরুটি পছন্দমতো টুকরো করে কেটে ভেজে নিন। তারপর ১ কাপ পানিতে গুড় জ্বাল দিয়ে ছেঁকে নিতে হবে। ১ কাপ গুঁড়া দুধ, ১ কাপ পানি ও এলাচির গুঁড়া দিয়ে গুলে জ্বাল দিয়ে ঠা-া করে নিতে হবে। এবার ভাজা পাউরুটি গুড়ের শিরায় ফেলে সঙ্গে সঙ্গে তুলে নিয়ে দুধের মধ্যে ফেলতে হবে।
এবার গুড়ের শিরা, দুধ, ঘি, কর্নফাওয়ার ও মাওয়া একটু জ্বাল দিয়ে ঘন করে সার্ভিং ডিশে সাজিয়ে রাখা পাউরুটির ওপর ঢেলে দিতে হবে। বাদাম, কিশমিশ ও ফল দিয়ে সাজিয়ে ঠা-া করে পরিবেশন করুন মিঠা টুকরা।

পুর ভরা মালপোয়া

উপকরণ: ময়দা ২ কাপ, সুজি ১ কাপ, পাটালি গুড় (আধা ভাঙা) ১ কাপ, এলাচির গুঁড়া আধা চা-চামচ, বেকিং পাউডার ১ চা-চামচ, তরল দুধ আধা লিটার, মৌরি ১ চিমটি, লবণ ১ চিমটি, তেল পরিমাণমতো, ছানার মিষ্টি ৪টি (পুরের জন্য)।
প্রস্তুত প্রণালি: প্রথমে ১ কাপ ঘন দুধে ২ টেবিল চামচ গুড় জ্বাল দিয়ে সিরাপ তৈরি করে নিন। এবার ময়দা, সুজি, এলাচের গুঁড়া, বেকিং পাউডার, লবণ ও মৌরি শুকনো অবস্থায় মিশিয়ে নিন। এবার প্রয়োজনমতো কুসুম গরম দুধ দিয়ে বড় এক হাতা গোলা দিয়ে সোনালি করে মালপোয়া ভেজে নিন। প্রতিটি মালপোয়ার মধ্যখানে ছুরি দিয়ে কেটে প্রথমে নরম গুড় ও টুকরো করা ছানার মিষ্টি ভরে দিন। এবার সার্ভিং ডিশে পুর ভরা মালপোয়াগুলো রেখে ওপর থেকে গুড়ের সিরা আস্তে আস্তে ঢেলে দিন। ঠা-া হলে পরিবেশন করুন পুর ভরা মালপোয়া।