প্রতিবেদন

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মিয়ানমারে প্রত্যাবর্তন ইস্যুতে বাংলাদেশের পাশে থাকবে ভারত -রিভা গাঙ্গুলি

নিজস্ব প্রতিবেদক
ঢাকায় নবনিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি বাংলাদেশে অবস্থানরত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মিয়ানমারে প্রত্যাবর্তন ইস্যুতে ভারতের সমর্থনের কথা পুনর্ব্যক্ত করেন। হাইকমিশনার হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর ১০ মার্চ রিভা গাঙ্গুলি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে প্রথম সাক্ষাতে এসব কথা বলেন।
বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের নতুন হাইকমিশনার বলেন, ১০ লাধিক রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশের জন্য একটি বোঝাস্বরূপ। এদের নিরাপদে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দরকার। ভারত এই ইস্যুতে সবসময় বাংলাদেশের পাশে রয়েছে।
ভারতের হাইকমিশনার বলেন, বিপুলসংখ্যক রোহিঙ্গা শরণার্থীকে বাংলাদেশে আশ্রয় প্রদান করার এই মহান মানবিক ঘটনায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা করেছে।
বৈঠকে রিভা গাঙ্গুলি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভারতের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন। এ সময় বাংলাদেশকে ভারতের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্র এবং উন্নয়ন অংশীদার হিসেবে বর্ণনা করে ভারতের হাইকমিশনার বলেন, শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে বাংলাদেশ ও ভারতের অকৃত্রিম বন্ধুত্ব ক্রমেই গাঢ় হচ্ছে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিগত এক দশকে বাংলাদেশের চমকপ্রদ আর্থসামাজিক উন্নয়নের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে ভারতের হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি বলেন, বাংলাদেশ এই সময়ের মধ্যে যে সকল পরিবর্তন সাধিত হয়েছে এবং উন্নয়ন ঘটেছে তাতে তিনি অভিভূত। দায়িত্ব পালনে তার পূর্বসূরি হর্ষ বর্ধন শ্রিংলাকে যেভাবে বাংলাদেশ সহযোগিতা করেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে রিভা গাঙ্গুলি সে ধরনের সহযোগিতা আশা করেন।
প্রধানমন্ত্রী ভারতের হাইকমিশনারকে বাংলাদেশে দায়িত্ব পালনে পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস দেন।
ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বিদ্যমান সহযোগিতার প্রসঙ্গে রিভা বলেন, আমাদের সহযোগিতার আরও নতুন সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। ভারত-বাংলাদেশ যৌথ কমিশনকে কার্যকর করা হয়েছে উল্লেখ করে এই বিষয়ে দিল্লি তাদের সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে বলে জানান হাইকমিশনার।
ভারত-বাংলাদেশ উন্নয়ন সহযোগিতা প্রসঙ্গে রিভা গাঙ্গুলি বলেন, এ ধরনের সহযোগিতার েেত্র সবসময়ই উভয় পরে জন্য একটি উইন-উইন পরিস্থিতি বিরাজ করে।
বাংলাদেশে নারীর মতায়নের সাফল্যের ভূয়সী প্রশংসা করে নবনিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি বলেন, বাংলাদেশ নারীর ক্ষমতায়নে অতুলনীয় সাফল্য অর্জন করেছে।
দুই দেশের কানেকটিভিটি প্রসঙ্গে রিভা গাঙ্গুলি বলেন, এই যোগাযোগব্যবস্থার উন্নয়ন সাধিত হলে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি নিশ্চিত হবে।
শেখ হাসিনা নবনিযুক্ত হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলিকে বাংলাদেশে স্বাগত জানিয়ে বলেন, তাঁর নেতৃত্বাধীন সরকার হাইকমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালনে তাকে সর্বান্তকরণে সহযোগিতা করবে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভারত সরকার এবং সে দেশের জনগণ বাংলদেশকে তার মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময় থেকেই সবসময় সহযোগিতা করে আসছে।
ভারত ও বাংলাদেশ তাদের মধ্যকার দীর্ঘ সময় ধরে চলে আসা সীমান্ত সমস্যার সমাধান করেছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, এটি আমাদের মুক্তিযুদ্ধকালীন সহযোগিতার মতোই একটি উদাহরণ হয়ে থাকবে, যেখানে সমস্যাটির সমাধানে ভারতের সংসদে সকল দল একত্রিত হয়ে এতে সমর্থন ব্যক্ত করে। এ প্রসঙ্গে ভারতের হাইকমিশনার বলেন, এটি প্রতিবেশী দুই দেশের সম্পর্কের েেত্র একটি মডেল হিসেবে বিবেচিত হতে পারে।
সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রশ্নে বাংলাদেশ সরকারের জিরো টলারেন্স নীতির উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, কারও বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী তৎপরতা চালাতে কখনও বাংলাদেশের ভূখ-কে ব্যবহার করতে দেয়া হবে না।
বিগত এক দশকে দেশের চমকপ্রদ উন্নয়নের উল্লেখযোগ্য অংশ তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন সাধনই তার সরকারের মূল ল্য।
প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান এবং ঢাকায় ভারতের উপ-হাইকমিশনার ড. আদর্শ সোয়াইকা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে গত ২০ ডিসেম্বর বাংলাদেশে ভারতের নতুন হাইকমিশনার হিসেবে নিয়োগ পান দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাংস্কৃতিক বিভাগ-আইসিসিআরের মহাপরিচালক রিভা গাঙ্গুলি দাস। তিনি ১৯৮৬ সালে ভারতীয় পররাষ্ট্র সার্ভিসে যোগদান করেন। দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করে পররাষ্ট্র সার্ভিসে যোগদানের আগে রিভা দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক ছিলেন।
রিভা ১৯৯৮ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনের তথ্য ও সাংস্কৃতিক বিভাগের প্রধান (কাউন্সিলর) ছিলেন। বাংলাদেশে দায়িত্ব পালনের সুবাদে গণমাধ্যম, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক মহলে তিনি সুপরিচিত। ঢাকার পর তিনি জাতিসংঘের অর্থনৈতিক ও সামাজিক বিষয়ক বিভাগের পরিচালক হন। দায়িত্ব পালনকালে তিনি পরিবেশ সংক্রান্ত আলোচনা বিশেষ করে জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে আলোচনায় অংশ নেন। তিনি নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগে ভারতের উপ-মিশন প্রধান ছিলেন। ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত রিভা গাঙ্গুলি দুই সন্তানের জননী।