ফিচার

ঢাকার যানজট কমাতে ডিজিটাল উদ্যোগ ‘ইয়েস পার্কিং’

নিজস্ব প্রতিবেদক
বাংলাদেশের মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন হয়েছে, মাথাপিছু আয় বেড়েছে। আর উন্নয়নের সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে রাস্তায় গাড়ির সংখ্যা। এরই সাথে যানজটে নাকাল রাজধানীবাসী, যদিও সরকার ঢাকার যানজট নিরসনে নানামুখী পদক্ষেপ নিচ্ছে। তবে ঢাকার যানজট নিরসনে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বাংলা ট্র্যাক নিয়ে এসেছে ‘ইয়েস পার্কিং’ অ্যাপস। এই অ্যাপসের মাধ্যমে পার্কিং ভাড়া দেয়া ও নেয়া যাবে। প্রতি ঘণ্টায় ৩০ টাকা ভাড়া দিয়ে গাড়ি পার্কিংয়ে রাখতে পারবেন। তবে এ মুহূর্তে বাংলা ট্র্যাক কোনো টাকা নেবে না। অ্যাপসটি পুরোদমে চালু হলে তারা ভাড়া দেয়া ও নেয়া উভয় পক্ষ থেকে একটা কমিশন পাবেন। যানজটের কারণে রাস্তায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকা থেকে এই অ্যাপস অনেকটাই মুক্তি দেবে। রাস্তায় গাড়ি পার্কিং না থাকলেই ঢাকার যানজট অনেকাংশে কমে যাবে বলে অভিজ্ঞজনদের মত।
বাংলা ট্র্যাক গ্রুপের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এম জাহাঙ্গীর আলম স্বদেশ খবরকে বলেন, আমরা মানুষের প্রয়োজন বিবেচনা করে সচেতনতার সঙ্গে তাদের উদ্বেগের বিষয়গুলো (যেমন নেভিগেশন ও পার্কিং স্পেস খুঁজে পেতে) সমাধান করতে এ উদ্যোগ নিয়েছি। পার্কিং স্পেস কোনো সমস্যাই না। ঢাকা শহরে ব্যক্তি ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বহু পার্কিং পড়ে আছে। ওই পার্কিংগুলো না চেনার কারণে অনেকেই গাড়ি রাস্তায় পার্কিং করছে। যদি আমাদের অ্যাপসের মাধ্যমে তারা পার্কিং ভাড়া দিতে চান বা কেউ নিতে চান তাহলে উভয় পক্ষই লাভবান হবেন।
রাজধানীতে অনুমোদনহীন পার্কিংয়ের কারণে সৃষ্ট যানজট কমাতে ‘ইয়েস পার্কিং’ নামে একটি প্ল্যাটফর্ম চালু করেছে বাংলা ট্র্যাক গ্রুপ। এই গ্রুপটি মূলত বাংলাদেশে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ এবং আইসিটি খাতের পণ্য ও সেবার জন্য পরিচিত একটি প্রতিষ্ঠান। এই অ্যাপ ব্যবহার করে বিভিন্ন কোম্পানি ও ব্যক্তি ঘণ্টা ভিত্তিতে পার্কিং স্পেস ভাড়া নিতে রেজিস্ট্রার করতে পারবেন। এর মাধ্যমে মানুষকে গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য উন্মুক্ত স্পেস খুঁজে পেতে সহায়তা করবে। মালিকরা তাদের পার্কিং স্পেস ভাড়া দিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন। এই প্ল্যাটফর্মটি নগরবাসীর জন্য ডিজিটাল পদ্ধতিতে পার্কিং স্পেস শনাক্ত ও রিজার্ভ করতে সহায়তা করবে। রাজধানীতে পিক আওয়ারে গাড়ির (বিশেষ করে প্রাইভেট কারের) যানজট কমাবে। এছাড়াও যদি কোনো পার্কিং স্পেস খালি বা অব্যবহৃত থাকে তাহলে এই প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে মালিকরা সেটা ভাড়া দিতে পারবেন। ‘ইয়েস পার্কিং’ অ্যাপটি প্লে স্টোর ও অ্যাপ স্টোর থেকে ডাউনলোড করা যাবে। এ ধরনের উদ্ভাবনী কাজের জন্য বিশ্বের অন্যতম প্রভাবশালী পরামর্শদাতা প্রতিষ্ঠান ফরেস্টারের তালিকাভুক্ত হয়েছে বাংলা ট্র্যাক। যঃঃঢ়ং://মড়. ভড়ৎৎবংঃবৎ. পড়স/নষড়মং/ ঃবষপড়ং-সঁংঃ-ঢ়ৎরড়ৎরঃর ‘ব-রহহড়াধঃরড়হং-ঃযধঃ-বীঃবহফ-নবুড়হফ-হবঃড়িৎশরহম এই ঠিকানায় গিয়ে বাংলা ট্র্যাক পার্কিং অ্যাপস সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানা যাবে।
উল্লেখ্য, বাংলা ট্র্যাক গ্রুপ ২০০৪ সালে বাংলা ক্যাট নামে বাংলাদেশে ক্যাটারপিলারের একমাত্র ডিস্ট্রিবিউটর বা পরিবেশক হিসেবে যাত্রা শুরু করে। ২০১৮ সালে আইজিডব্লিউ কার্যক্রমের বাণিজ্যিকীকরণের মাধ্যমে টেলিকমিউনিকেশন্স ও আইটি খাতে গ্রুপটি তাদের ব্যবসা সম্প্রসারণ করে। গত ১০ বছর ধরে ব্যবসার বিভিন্ন ক্ষেত্রে সম্প্রসারণের মাধ্যমে বাংলা ট্র্যাক গ্রুপ তাদের সম্প্রসারণ অব্যাহত রেখেছে। বিশেষ করে গ্রুপটি আইসিটি ও জ্বালানি খাত নিয়ে কাজ করে আসছে। ভয়েস অ্যান্ড ডেটা কমিউনিকেশন্স, আইওটি, ক্লাউড, বিগ ডেটা এবং বিপিও’র ক্ষেত্রে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে বাংলা ট্র্যাকের ব্যাপক সুনাম রয়েছে।
পার্কিং সুবিধার জন্য ঢাকায় আরও একটি কোম্পানি ‘নেক্সপার্ক অ্যাপনেক্স পার্ক অ্যাপ’ নামে তাদের সেবা চালু করেছে। নির্দিষ্ট স্থানে গাড়ি রাখার সুবিধা দিতে দেশি উদ্যোক্তারা তৈরি করেছেন নেক্সপার্ক নামের একটি অ্যাপ্লিকেশন। এর উদ্যোক্তারা বলছেন, এটি বাংলাদেশের প্রথম পার্কিং শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম। এ অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে পছন্দসই স্থান বাছাই করে সেখানে গাড়ি রাখা যাবে। অ্যাপটি ব্যবহার করে গ্যারেজের মালিকেরা তাদের পার্কিং স্পেস ভাড়া দিতে পারবেন। অ্যাপটি চালক ও গ্যারেজের মালিকের মধ্যে সমন্বয় করবে। গাড়ি সকালে বের হলে সাধারণত গ্যারেজ বা পার্কিং স্পেস খালি থাকে। সেখানে অ্যাপ ব্যবহার করে চালককে ঘণ্টা, দিন বা সপ্তাহ চুক্তিতে ভাড়া দেয়া যাবে। বিকাশসহ কার্ডের মাধ্যমে ভাড়া পরিশোধের সুযোগ রয়েছে। এটি ব্যবহার করতে নিজের গাড়ি ও মোবাইল নম্বর দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে। প্রয়োজনীয় পার্কিংয়ের জায়গা বেছে নিয়ে তাতে ক্লিক করলে সেখানকার ফাঁকা জায়গা সম্পর্কে তথ্য পাওয়া যাবে। এই অ্যাপসের মাধ্যমে জরুরি অ্যাম্বুলেন্স, হাসপাতাল, এটিএম বুথ ও ওষুধের দোকান খুঁজে নেয়ারও ব্যবস্থা রয়েছে। গুগল প্লে স্টোরে (যঃঃঢ়ং:// ঢ়ষধু. মড়ড়মষব.পড়স/ংঃড়ৎব/ ধঢ়ঢ়ং/ ফবঃধরষং?রফ=পড়স.হবীঢ়ধৎপ) অ্যাপসটি পাওয়া যাবে।