প্রতিবেদন

বাংলাদেশের উন্নয়নে বিশ্বব্যাংককে সহায়তার আহ্বান জানালেন সালমান এফ রহমান

নিজস্ব প্রতিবেদক
বাংলাদেশের উন্নয়নে সহায়তা করার জন্য বৈশ্বিক ঋণদাতা সংস্থা বিশ্বব্যাংককে আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান।
১৫ নভেম্বর ওয়াশিংটন ডিসিতে বিশ্বব্যাংকের সদর দপ্তরে সংস্থাটির জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে তিনি এ আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী ও বিচণ নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশ আজ প্রশংসনীয় এ পর্যায়ে উন্নীত হয়েছে।
আলোচনায় অংশ নেন বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম, যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশ দূতাবাসের ইকোনমিক মিনিস্টার এবং বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। উপস্থিত ছিলেন বিশ্বব্যাংকের বাণিজ্য, বিনিয়োগ ও প্রতিযোগিতা বিষয়ক বৈশ্বিক পরিচালক ক্যারোলাইন ফ্রেউন্ড, কৌশল ও অপারেশন, দণি এশিয়া বিষয়ক পরিচালক সামিয়া মসাদেক, পরিচালক জুবিদা আলাওয়া, উন্নয়ন অর্থনীতি বিষয়ক পরিচালক সিমিন্যন জাঙ্কভ, বাংলাদেশ, ভুটান ও নেপালে বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর কিমিয়াও ফ্যান ও সাবেক কেবিনেট সচিব বর্তমানে বিশ্বব্যাংকে বাংলাদেশের বিকল্প নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ শফিউল আলম।
বৈঠকে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতি ও বিশ্বব্যাংক গ্রুপের সম্ভাব্য সহযোগিতা ও সমর্থনের বিষয়টি গুরুত্ব পায় এবং বাংলাদেশ প্রতিনিধি দল ও বিশ্বব্যাংকের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ খাতে সহযোগিতার ত্রে বৃদ্ধি করতে একমত হন। এর মধ্যে রয়েছে বৈদেশিক প্রত্য বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে ব্যবসাবাণিজ্য সহজীকরণ সম্পর্কিত সংস্কার, বিনিয়োগসংশ্লিষ্ট আইনকানুন সংস্কার, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপরে প্রাতিষ্ঠানিক সমতা বৃদ্ধি, চতুর্থ শিল্প-বিপ্লব মোকাবিলার ল্েয দতা উন্নয়ন, ঝুঁকি বিবেচনাভিত্তিক ব্যবস্থাপনা প্রবর্তন, ব্যবসা সহজীকরণের ল্েয সমন্বিত ওয়ানস্টপ শপ কার্যকর ইত্যাদি। ফলপ্রসূ আলোচনায় উভয় পই তাদের সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে এবং উপরোক্ত ত্রেগুলোতে একযোগে কাজ করতে সম্মত হয়েছে।
এর আগে সালমান এফ রহমান যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসিতে অবস্থিত প্রভাবশালী দুই মার্কিন থিঙ্কট্যাঙ্ক হাডসন ইনস্টিটিউট ও হেরিটেজ ফাউন্ডেশনে বক্তব্য রাখেন। তিনি দণি ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক ভারপ্রাপ্ত মার্কিন সহকারী মন্ত্রী অ্যালিস ওয়েলসের সঙ্গে দ্বিপীয় বৈঠকে মিলিত হন।
হাডসন ইনস্টিটিউটে ‘বাংলাদেশের দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতি: সুযোগ ও চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা একটি পাওয়ারপয়েন্ট উপস্থাপনা করেন। এতে শিাবিদ, গবেষক, মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, সংবাদমাধ্যম, নীতি ও ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
ওই বৈঠকে সালমান এফ রহমান বলেন, বাংলাদেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগের আকর্ষণীয় সুযোগ রয়েছে। এসময় তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান জানান।
গোলটেবিল বৈঠক পরিচালনা করেন মার্কিন থিঙ্কট্যাঙ্ক কমিউনিটিতে প্রসিদ্ধ ব্যক্তি, হাডসন ইনস্টিটিউটের দণি ও মধ্য এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক হুসেন হাক্কানি। গোলটেবিল বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন ও বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। এরপর সালমান এফ রহমান একটি প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশ নেন এবং সকলের প্রশ্নের উত্তর দেন।
এছাড়া ১৫ নভেম্বর হেরিটেজ ফাউন্ডেশনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সালমান এফ রহমান। তিনি উপস্থিত শিাবিদদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন এবং বিভিন্ন ইস্যুতে প্রকৃত তথ্য ও সরকারের অবস্থান ব্যাখ্যা করেন।
বৈঠক শেষে যুক্তরাষ্ট্রের দণি ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক ভারপ্রাপ্ত সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যালিস ওয়েলসের সঙ্গে সাাৎ করেন সালমান এফ রহমান। বৈঠকে তিনি বাংলাদেশের অনুকূল ও ব্যবসাবান্ধব বিনিয়োগ পরিবেশের ওপর আলোচনা এবং বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক সম্পর্কের বিষয়ে দু’জনই আন্তরিকভাবে মতবিনিময় করেন। এসময় তারা ভবিষ্যৎ দিনগুলোতে দ্বিপীয় সম্পর্ক আরও বিস্তৃত ও গভীর করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।