প্রতিবেদন

রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করলেন সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ

সবার আগে জনগণের সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে বলে জানিয়ে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ বলেছেন, স্থানীয় জনগণের সুবিধা-অসুবিধা ও স্বার্থকে প্রাধান্য দিয়ে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের চারপাশে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণ করা হবে।
গত ১৬ জানুয়ারি কক্সবাজারের উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে সময় তিনি এ কথা বলেন।
কুতুপালং ও লম্বাশিয়া ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে উখিয়ার অস্থায়ী সেনাক্যাম্পে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন সেনাপ্রধান। এর আগে সেনাপ্রধানকে ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করে নেন শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মাহবুবুল আলম তালুকদার, কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সরওয়ার কামাল, উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নিকারুজ্জামান চৌধুরী ও উখিয়া থানার ওসি আবুল মনসুর।
উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিকারুজ্জামান চৌধুরী জানান, দুপুর ১২টার দিকে সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ হেলিকপ্টারযোগে কুতুপালং পশ্চিমপাড়ায় নির্মিত হেলিপ্যাডে অবতরণ করেন। সেখান থেকে সড়কপথে কুতুপালং ও লম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গিয়ে নির্মাণাধীন কাঁটাতারের বেড়া পরিদর্শন করেন। পরে উখিয়া ডিগ্রি কলেজসংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত আর্মি কো-অর্ডিনেশন কর্মকর্তাদের উদ্দেশে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণসহ বিভিন্ন বিষয়ে ব্রিফ করেন।
ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মাহবুবুল আলম তালুকদার বলেন, কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণে অর্থ-সংশ্লিষ্টতার জটিলতা নিরসনে ইউএনএইচসিআরের সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া যেতে পারে।
এর জবাবে সেনাপ্রধান বলেন, সেনাবাহিনী কোনো এনজিওর সঙ্গে কোনো ধরনের সম্পর্কে জড়াবে না। সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী সেনাবাহিনী কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণ করবে।