প্রতিবেদন

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করলো বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী

নিজস্ব প্রতিবেদক
সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর জন্মের ১০০ বছর পূর্ণ হয়েছে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ। তাই স্বাধীনতার নেতৃত্বদানকারী দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, সরকার এবং সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ ২০২০ সালের ১৭ মার্চ যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পালন করেছে জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠন এবং প্রতিষ্ঠানের ন্যায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, নৌ ও বিমান বাহিনীও যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি উদযাপন করেছে।
আইএসপিআরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসাহ-উদ্দীপনার মাধ্যমে জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী একযোগে ঢাকাসহ দেশের সকল সেনানিবাসে উদযাপিত হয়।
ওই দিন সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে ঢাকা পুরাতন বিমানবন্দর এলাকায় ১০০ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসটির অনুষ্ঠানমালার সূচনা হয়। ঢাকা সেনানিবাসে সদর দপ্তর লজিস্টিকস এরিয়ার তত্ত্বাবধানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস-২০২০ উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করা হয়। র‌্যালিতে ঢাকা সেনানিবাসের অফিসার, জেসিও, অন্যান্য পদবির সেনাসদস্য এবং বেসামরিক ব্যক্তিবর্গ অংশগ্রহণ করেন।
আয়োজিত র‌্যালিতে জাতির পিতার ছবি এবং তাঁর গুরুত্বপূর্ণ বাণী সংবলিত ব্যানার, ফেস্টুন ইত্যাদি প্রদর্শন করা হয়। দিবসটি উপলক্ষে ঢাকা সেনানিবাসের প্রতিটি প্রবেশপথ এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় আলোকসজ্জা করা হয়। দিবসটি উপলক্ষে জাতির পিতার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে সেনানিবাসসমূহের সকল মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ দোয়া এবং তাঁর স্মৃতির স¥রণে প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়।
এছাড়াও সেনাবাহিনী কর্তৃক পরিচালিত সকল স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে আলোচনা অনুষ্ঠান, কুইজ, রচনা, বিতর্ক ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, কবিতা আবৃত্তিসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে নৌবাহিনীর সকল ঘাঁটি ও জাহাজসমূহে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপিত হয়। এ উপলক্ষে ঢাকা, চট্টগ্রাম ও খুলনা নৌঅঞ্চলে নিজ নিজ ব্যবস্থাপনায় বিশেষ র‌্যালির আয়োজন করা হয়। এতে নৌবাহিনীর সকল স্তরের সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তা, কর্মচারী ও নাবিকগণ অংশগ্রহণ করেন।
জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে সকল নৌঅঞ্চলের মসজিদগুলোতে বাদ যোহর মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাতের ব্যবস্থা করা হয়। এছাড়া নৌ-ঘাঁটিস্থ বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে জাতির পিতার জীবনী ও কর্মকা-ের ওপর ভিত্তি করে নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনের ব্যবস্থা করা হয়। সকল ঘাঁটি ও জাহাজে প্রীতিভোজের আয়োজন করা হয়। দিবসটি উপলক্ষে নৌবাহিনীর সকল ঘাঁটি ও জাহাজসমূহে পতাকা দ্বারা সজ্জিত করা হয়।
বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সাড়ম্বরে উদযাপন ও জাতীয় শিশু দিবস-২০২০ উপলক্ষে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর ব্যবস্থাপনায় বিমান সদর দপ্তর সংলগ্ন এলাকায় এক স্বতঃস্ফূর্ত র‌্যালির আয়োজন করা হয়। বঙ্গবন্ধুর ছবিসংবলিত ব্যানার, ফেস্টুন নিয়ে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর সদস্যরা উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে আনন্দ র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন। র‌্যালিটি বিমান বাহিনী ঘাঁটি বাশারের সৌদি কলোনি মাঠ থেকে শুরু হয়ে বিমান সদর ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকা প্রদক্ষিণ করে।
র‌্যালিতে উপস্থিত সকলের উদ্দেশে বক্তব্য প্রদান করেন সহকারী বিমান বাহিনী প্রধান (পরিচালন) এয়ার ভাইস মার্শাল এম আবুল বাশার। এ সময় বিমান সদরের পিএসওগণ, বিমান বাহিনী ঘাঁটি বাশারের অধিনায়কসহ অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও বিমানসেনাগণ উপস্থিত ছিলেন।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর সকল ঘাঁটিতে র‌্যালির আয়োজন করা হয়। সবগুলো ঘাঁটিতেই আলোকসজ্জা করা হয়।