প্রতিবেদন

শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে ৩৫৮টি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়েছে: র‌্যাব ডিজি

র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) নব নিযুক্ত মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেছেন, নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে এ পর্যন্ত দেশব্যপী ৩৫৮টি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়েছে।
চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন চলমান করোনা পরিস্থিতি ও পবিত্র মাহে রমজানে র‌্যাবের গৃহীত নিরাপত্তা ব্যবস্থাদি নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে অনলাইনে মতবিনিময়কালে এক প্রশ্নের জবাবে ২৫ এপ্রিল এ কথা বলেন।
করোনা পরিস্থিতিতে ঘরের বাইরে ঘোরাফেরা বন্ধ নিশ্চিত করতে পাড়া-মহল্লার অলিগলিতে আড্ডাবাজদের তথ্য র‌্যাবকে জানানোর অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, যেখানে জনসাধারণের অনর্থক আড্ডার তথ্য পাবো, আমাদের মোবাইল টিমগুলোকে সেখানেই ডাইভার্ট করা হবে।
র‌্যাব প্রধান বলেন, র‌্যাব করোনার মুহূর্তে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে কাজ করছে। সরকারি বিভিন্ন সংস্থাও কাজ করছে। এরপরেও সামাজিক দূরত্ব ও লকডাউন নিয়ম ভেঙে অলিগলিতে জমায়েত হচ্ছে, আড্ডা দিচ্ছে। আড্ডা সংস্কৃতি বন্ধ করতে হবে।
তিনি বলেন, আমরা যেখানেই তথ্য পাব- সন্ধ্যার পরে কোথাও আড্ডা, জমায়েত হলে, সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা না হলে, সেখানেই আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। টহল দেবে র‌্যাব।
করোনা বিষয়ক গুজব প্রতিরোধে র‌্যাবের ভার্চুয়াল পেট্রোলিং অব্যাহত রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, গুজব রটনা করে এমন ৫০টি সাইট নজরদারিতে রয়েছে। এ পর্যন্ত গুজব ছড়ানোর দায়ে ১১ জনকে আইনের আওতায় আনা হয়েছে।
এছাড়াও অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ নিন্মমানের মাস্ক-হ্যান্ড স্যানিটাইজার জব্দসহ দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে বেশ কিছু অভিযান চালনো হয়েছে বলে জানান তিনি।
চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেন, অনেকেই না বুঝে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন কনটেন্ট লাইক-শেয়ার করে আইনের আওতায় আসার মতো পরিস্থিতিতে পড়েন। তাই না বুঝে কাউকে এ ধরনের কর্মকা- এড়িয়ে চলার অনুরোধ জানান তিনি। একই সঙ্গে যেকোনো তথ্য যাচাইয়ে র‌্যাব সাইবার ভেরিফিকেশন সেন্টারের সহায়তা নেয়ার কথাও বলেন তিনি।
রমজানে নিরাপত্তার বিষয়ে র‌্যাব ডিজি বলেন, রমজানে গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধিসহ চেকপোস্ট ও টহল জোরদার করা হয়েছে। সাদা পোশাকে র‌্যাবের গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। এবারের রমজানে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের নির্দেশনা বাস্তবায়নে র‌্যাবের নজরদারি থাকবে।
করোনা পরিস্থিতিতে র‌্যাবের পক্ষ থেকে প্রায় ১২ হাজার পরিবারকে ত্রাণ সহায়তা দেয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, যেকোনো পরিস্থিতিতে জঙ্গি-সন্ত্রাসীদের থেকে নজর সরায়নি র‌্যাব। করোনা সংকটের মধ্যে ৮ মার্চ থেকে ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত ৩২ জন জঙ্গি ও ১ হাজার ৩৮২ জন অপরাধীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
তিনি বলেন, করোনা সংকটে পণ্যবাহী যানবাহন চলাচলে সহযোগিতা করছে র‌্যাব। সবজিবাহী যানবাহন যেখানে আসছে র‌্যাব সেখানে সহযোগিতা করছে।