খেলা

১৪তম এফএ কাপ শিরোপা জয় করলো আর্সেনাল

স্বদেশ খবর ডেস্ক
চেলসিকে হারিয়ে এফএ কাপের শিরোপা জিতলো আর্সেনাল। ২ আগস্ট লন্ডনের দর্শকশূন্য ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফাইনালে আর্সেনাল ২-১ গোলে দশ জনের চেলসিকে হারিয়ে চতুর্দশতম বার এফএ কাপের শিরোপা ঘরে তুলেছে।
সেমি ফাইনালের পর ফাইনালেও জোড়া গোল করেছেন পিয়েরে এমেরিক অবামেয়াং। চেলসির পক্ষে একমাত্র গোলটি করেন ক্রিস্টিয়ানো পুলিসিচ।
২০১৭ সালে চেলসিকে হারিয়েই সর্বোচ্চ ১৩তম বারের মতো এফএ কাপ জয়ের রেকর্ড গড়েছিলো আর্সেনাল। ফলে পেছনে পড়ে যায় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।
১৮৭১ সাল থেকে হয়ে আসা এই প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় সফল দল হিসেবে ১২বার শিরোপা জিতেছে ম্যান ইউ।
ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামের রাতের আকাশটা আলোকিত করে উল্লাসে মেতে উঠলো আর্সেনাল। গেল আসরের ইউরোপা লিগের ফাইনালে চেলসির কাছে হেরে শিরোপা হাতছাড়া করেছিলো গানাররা। সে কষ্ট দীর্ঘ সময় ধরে চেপে রেখেছিলো আর্সেনাল। শত কষ্টের জবাব এফ এ কাপের এই ম্যাচ।
এবারের মৌসুমে ইপিএলের শীর্ষ চারে না থাকতে পেরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলা অনিশ্চয়তায় পড়ে গিয়েছিলো গানারদের। তাইতো শেষ পর্যন্ত কঠিন সে কাজটা করতে পেরে নিজেদের ধরে রাখতে পারেনি আর্টেটা শীষ্যরা। নেচে গেয়ে উৎসবে মেতে ওঠে পুরো দল।
এর আগে ওয়েম্বলিতে ম্যাচের চিত্র
ছিলো একেবারেই আলাদা। জিরু, এসপিলেকুয়েতাদের দাপটে কোনঠাসা হয়ে পড়ে আর্সেনাল। মাত্র ৫ মিনিটেই সমর্থকদের আনন্দে ভাসান পুলিসিচ। অলিভার জিরুর সহায়তায় দুর্দান্ত গোল করেন এই মিডফিল্ডার।
গোল হজম করেই তেতে ওঠে আর্সেনাল। ২৮ মিনিটে মারাত্মক ভুল করে বসেন এসপিলেকুয়েতা। সে সুযোগে পেনাল্টি পায় আর্সেনাল। গোল করেন দলের নির্ভরতার প্রতীক পিয়েরে এমরিক অবামেয়াং। ইনজুরিতে পড়ে মাঠ ছাড়েন এসপিলেকুয়েতা।
৬৭ মিনিটে আবারো সেই অবামেয়াং ঝলক। শেষ পর্যন্ত নানা নাটকীয়তায় সময় গড়ালেও, শেষ হাসি হেসেছে আর্সেনাল। ২-১ গোলের জয়ে এফএকাপের ১৩৯তম আসরের শিরোপা নিশ্চিত করে গানাররা। একদিকে চেলসির হতাশা আর একদিকে আর্সেনালের উল্লাস। বিজয়ীর আনন্দে যোগ দেন সমর্থকরাও। আর লিড নিয়েও তা ধরে রাখতে না পারার কষ্টে মাঠ ছেড়েছে চেলসি।